কুরআন হেফয-১

হযরত বলেন, ‘হেফয ছাড়া কুরআন শরীফ তেলাওয়াতের মজা পাওয়া কঠিন। আমি বলি, হেফয না করলে কুরআন স্বাভাবিকভাবে তিলাওয়াতও করা যায়না। আমরা যখন কুরআন পড়ি, তখন নাতিরা বলে উঠে, ‘নানা! এখানে ভুল হয়েছে।’ হেফযের পর তাকে আলেমও হতে হবে। তবেই সে কুরআনের আসল স্বাদ পাবে। একদিন একটা কাজে ব্যাংকে গিয়েছি। ব্যাংকের ম্যানেজার সাহেবের সাথে কথা হচ্ছে। যখন তিনি জানলেন যে, আমি আমার সন্তানদের হাফেজ বানিয়েছি, তখন বলে উঠলেন, ‘কেন আপনি ছেলেমেয়েদের সময় নষ্ট করলেন?’ অথচ কুরআন মুখস্থ না থাকলে কুরআনের আয়াত পরম্পরায় সম্পর্ক ও অর্থ বুঝে আসবে না।’

  • ‘প্রফেসর হযরতের মালফুযাত’ – বই থেকে সংগৃহিত
Facebooktwittergoogle_pluspinterestmailby feather