মুনাজাতে মাকবুল

হযরত বলেন, আমাদের কথা সহজ সরল। আমরা সেই আমল করতে চাই, যেটা আল্লাহর কাছে অপমানিত করবে না। এজন্য দু‘আ করতে বলা হয়েছে,

اَللّٰهُمَّ إِنِّي أَعُوْذُ بِكَ مِنْ كُلِّ عَمَلٍ يُّخْزِيْنِيْ، وَأَعُوْذُ بِكَ مِنْ كُلِّ صَاحِبٍ يُّرْدِيْنِيْ ، وَأَعُوْذُ بِكَ مِنْ كُلِّ أَمَلٍ يُّلْهِيْنِيْ، وَأَعُوْذُ بِكَ مِنْ كُلِّ فَقْرٍ يُّنْسِينِي ، وَأَعُوْذُ بِكَ مِنْ كُلِّ غِنًى يُّطْغِيْنِيْ

হে আল্লাহ, আমি আপনার কাছে আমার এমন কর্ম থেকে আশ্রয় চাই, যা আমাকে লাঞ্ছিত করবে, এমন বন্ধু থেকে যে আমাকে অপদস্থ করবে, এমন আশা থেকে যা আমাকে গাফেল করবে, এমন দারিদ্র থেকে যা আমাকে সবকিছু ভুলিয়ে দিবে এবং এমন ধনাঢ্য থেকে যা আমাকে উদ্ধতকারী বানাবে।

মুনাজাতে মাকবুল কিতাবের একটি বিখ্যাত দু‘আ।  অপূর্ব দু‘আ। আমাকে এমন দীর্ঘ আশা থেকে রক্ষা করেন যেটা আমাকে ধোঁকায় ফেলবে। এই টিভিটা আর কয়েকদিন পরে ছেড়ে দিব। আর কয়দিন, আর কয়দিন। এই দীর্ঘ আশা আমাদেরকে ধোঁকায় ফেলে।

এক গোনাহ আরেক গোনাহকে টানে। শরীয়তের হুকুম হলো, প্রতিটি গোনাহ আগুন। হযরত মাওলানা আবরারুল হক রহমাতুল্লাহি আলাইহি সবসময় বলতেন ‘গোনাহ ছাড়; বাইরের গোনাহ ছাড়, ভিতরের গোনাহও ছাড়’। এমন প্রাচুর্য থেকে আমাকে রক্ষা করেন, যে প্রাচুর্য আমাকে নাফরমানীর দিকে ঠেলে দেয়। অদ্ভুত ছন্দময় দু‘আ। বেশিরভাগ সময় বেশী টাকা পয়সা বেশী গোনাহে লিপ্ত করে। যতবেশি পয়সা ততবেশি নাফরমানী।

এমন দারিদ্র থেকে পানাহ চাই, যা আমাকে আপনাকে ভুলিয়ে দিবে। দু‘আর জন্য মুনাজাতে মকবুল পড়া চাই।

Facebooktwitterpinterestmailby feather