মালফুযাত

একজন আলেম শাইখুল হাদিস যাকারিয়া রাহমাতুল্লাহি আলাইহি-এর আপবীতি থেকে কিছু অংশ পড়ে শোনালেন। শায়েখের স্ত্রী মারা যাওয়ার পর, নিজের মেয়েক দাফন করে যাকারিয়া রাহমাতুল্লাহি আলাইহি-এর শ্বশুর কবরস্থান থেকে ফেয়ার পথে তাঁর চাচা হযরত ইলিয়াস রাহমাতুল্লাহি আলাইহি কে বললেন, ‘যাকারিয়ার বয়স কম। তাঁর আবার বিয়ের বন্দোবস্ত করেন। দেরি করবেন না। একটি উপযুক্ত সম্মন্ধ দেখেন। আমি নিজে সেখানে কথা বলব। হযরত বলেন, আমাদের দেশে কোন ব্যক্তির স্ত্রী মারা গেলে তাঁর দ্বিতীয় বিয়ে অত্যন্ত ঘৃণার চোখে দেখা হয়। যেন এটা অত্যন্ত জঘণ্য কাজ। কবীরা গোনাহের চেয়ে খারাপ। আমাদের সামনে অনেক সংসার ভেঙ্গে যাচ্ছে। ছেলে মেয়ে কিছুতেই মানবেনা। আমার মায়ের জায়গায় আরেকজন আসবে আমরা কিছুতেই তা হতে দেব না। অথচ রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) পুরুষদের স্ত্রীহীন অবস্থায় একা থাকা পছন্দ করতেন না।

Facebooktwittergoogle_pluspinterestmailby feather

‘দরিয়ায় বিচরণশীল পর্বতদৃশ্য জাহাজসমূহ তাঁরই (নিয়ন্ত্রনাধীন)’

হযরত বলেন, ‘একজন বলে আমি এই-এইভাবে সাধনা করে এত সম্পত্তির মালিক হয়েছি। আল্লাহ্‌ বলেন, আমি তোমাদের যা দিয়েছি তা থেকে খরচ কর।’ আমি বলি, এ সম্পত্তি আমার। আর আল্লাহ্‌ বলেন সম্পত্তি আল্লাহর। সূরা আর রাহমানে আল্লাহ্‌ তাআলা বলেন,

[55:24]  وَلَهُ ٱلۡجَوَارِ ٱلۡمُنشَـَٔاتُ فِى ٱلۡبَحۡرِ كَٱلۡأَعۡلَـٰمِ

‘দরিয়ায় বিচরণশীল পর্বতদৃশ্য জাহাজসমূহ তাঁরই (নিয়ন্ত্রনাধীন)’। অথচ বান্দা বলে এটা আমার।

Facebooktwittergoogle_pluspinterestmailby feather

ইকামতের জবাব

হযরত বলেন, আমরা অনেকেই আযানের জবাব দেই ইকামতের জবাব দেইনা। ইকামতের জবাব আযানের জবাবের মতোই। তবে قد قامت الصلاة  এর জবাবে বলতে হবে  أقامها الله وأدامها

Facebooktwittergoogle_pluspinterestmailby feather

‘দেখাদেখি কারতে হেঁ, পুছতে নেহি…’

হযরত বলেন, হরদুই হযরত বলতেন, ‘দেখাদেখি কারতে হেঁ, পুছতে নেহি। উলামাসে পুছো।’ সাধারণ মানুষ একে অন্যকে দেখে আমল করে, আলেমদের জিজ্ঞেস করে না। আল্লাহ্‌ তাআলা বলেন,

فَسۡـَٔلُوٓاْ أَهۡلَ ٱلذِّكۡرِ إِن كُنتُمۡ لَا تَعۡلَمُونَ

অতএব জ্ঞানীদেরকে জিজ্ঞেস কর, যদি তোমাদের জানা না থাকে; ‘আয়াতে বলা হয়েছে, যিকিরকারীদেরকে জিজ্ঞেস কর। আমি এটাকে সহজ করে বলি, মৌলবীদেরকে জিজ্ঞেস করেন।’

Facebooktwittergoogle_pluspinterestmailby feather

প্রফেসর হযরতের সাম্প্রতিক বয়ান – ১৮ মে ২০১৬, শ্যামলী, ঢাকা

**অডিও কোয়ালিটি ভালো না হবার জন্য দুঃখিত। হেডফোন ব্যবহার করুন।

ডাউনলোড

Facebooktwittergoogle_pluspinterestmailby feather

প্রফেসর হযরতের সাম্প্রতিক বয়ান – উত্তরা – মাসজিদ-আল-মাগফেরা

হযরত প্রফেসর হামিদুর রহমান সাহেব দামাত বারাকাতুহুম ২৫শে ডিসেম্বর উত্তরা মসজিদ আল মাগফেরায় এই বয়ান দেন।

ডাউনলোড

Facebooktwittergoogle_pluspinterestmailby feather

শুক্রবারের ফযরের সুন্নত

হযরত বলেন, হরদুঈ হযরতের বাংলাদেশে প্রথম সফরের কথা। বৃহস্পতিবার রাত্রে হযরতের সাথী আলেমরা বলছিলেন ফযরের সময় প্রথম রাকাতে সূরা আলিফ লাম সেজদা এবং দ্বিতীয় রাকাতে সূরা দাহার দিয়ে নামায পড়াতে হবে। হাফেজ সাহেব খোঁজা শুরু হলো। আনেক হাফেজ সাহেব। কিন্তু হযরতের সামনে নামায পড়তে কেউ রাজি হয়না। এখন মক্কা শরীফ গেলে দেখা যায় এই দুই সূরা দিয়ে শুক্রবারের ফযর নামায পড়া হচ্ছে। আলহামদুলিল্লাহ, এখন আমাদের উত্তরা ৩নং সেক্টর মসজিদে এই দুই সূরা দিয়ে শুক্রবারের ফযর পড়া হচ্ছে। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর সুন্নত জিন্দা হচ্ছে।

Facebooktwittergoogle_pluspinterestmailby feather

নৈরাশ্যকে আশায় পরিণত করে দিয়েছে…

হযরত বলেন, মকতবে একটি শিশু ছয় বছর বয়সেই কায়দা পড়া শুরু করে। ছয় বছরের বাবুকে কি আমরা তাবলীগে নিতে পারবো? তাঁদের তালীমের উত্তম বয়স হল এটা। হযরত মাওলানা আশরাফ আলী থানভী রহঃ বয়সে তুলনামূলকভাবে বড় হযরতজীর চেয়ে বড় ছিলেন। বড় হযরতজী বারবার হযরত থানভী রহঃ -এর কাছে যেতেন। হযরত থানভী রহঃ-এর বিখ্যাত বাণী, ‘মাওলানা ইলিয়াস আমাদের নৈরাশ্যকে আশায় পরিণত করে দিয়েছে। আমরা চিন্তা করতাম আমরা ঘরে ঘরে যাই না কেন। আল্লাহ্‌ তা’আলা মাওলানা ইলিয়াস রহঃ-এর মাধ্যমে ঘরে ঘরে দাওয়াত পৌঁছানোর সিলসিলা চালু করেছেন। এজন্য মিলেমিশে কাজ করা উচিত।’

Facebooktwittergoogle_pluspinterestmailby feather

a site based on Islamic lectures of Hazrat Professor Muhammad Hamidur Rahman (DB)