Tag Archives: হাফেজ্জী হুযুর

দ্বীনি মজলিস

হযরত বলেন, হাফেজ্জী হুযুর রহমাতুল্লাহি আলাইহি বলতেন, আসেন একটু দ্বীনের আলোচনা করি। উদ্দ্যেশ্য কী? আখেরাতের তলব বাড়ানো। আখেরাতের তলব তো আমাদের আছেই। একদিন কবরে যাব। আখেরাতের পথে পাড়ি জমাব। জানি আমরা। কিন্ত তার পরিমাণ বাড়ানো দরকার। আর বাড়ানোর জন্য এসব দ্বীনি মজলিস। এই মর্মে হরদুই হযরত রহমাতুল্লাহি আলাইহি একটি আয়াত বারবার বলতেন,

وَذَكِّرْ فَإِنَّ الذِّكْرٰى تَنْفَعُ الْمُؤْمِنِيْنَ

আপনি মনে করিয়ে দিন। মনে করিয়ে দেয়া অবশ্যই ঈমানদারদের উপকার করবে।

ذَكِّرْ  মানে মনে করিয়ে দেন, আলোচনা করেন, নসিহত করেন। فَإِنَّ الذِّكْرٰى মানে নিশ্চয়ই মনে করিয়ে দেওয়া, নসিহত করা, تَنفَعُ الْمُؤْمِنِيْنَ – ঈমানদারদের উপকৃত করবে। ঈমানের লাইনে উন্নতি করার জন্য, দ্বীনের কথা পড়া দরকার, শোনা দরকার। এজন্য দ্বীনের মজলিসে বারবার বসা দরকার। একই কথা বার বার আল্লাহপাক কালামে পাকেও বলেছেন।

فَذَكِّرْ إِنَّمَا أَنتَ مُذَكِّرٌ   لَسْتَ عَلَيْهِم بِمُصَيْطِرٍ

আপনি নসিহত করেন। আপনি তো নসিহত করার জন্যই। আপনাকে দারোগা বানাইনি।

জোর জবরদস্তি করে, ধরে টেনে টেনে আনবেন বিষয়টা সেরকম না। আবার,

فَذَكِّرْ بِالْقُرْاٰنِ مَنْ يَّخَافُ وَعِيْدِ

‘কুরআন দিয়ে মনে করিয়ে দেন তাকে, যে আমার ভীতি প্রদর্শনকে ভয় করে।’

মানে আল্লাহকে বিশ্বাস করা, রাসূলকে বিশ্বাস করা, আখেরাতকে বিশ্বাস করা। একই কথাকে আল্লাহপাক বারবার কালামে পাকে বলেছেন। আর এই কাজটা তার প্রিয়। তিনি বলেছেন,

وَمَنْ أَحْسَنُ قَوْلًا مِمَّنْ دَعَا إِلَى اللهِ وَعَمِلَ صَالِحًا

وَقَالَ إِنَّنِيْ مِنَ الْمُسْلِمِيْنَ

তার চেয়ে আর কার কথা সুন্দর, যে মানুষকে আল্লাহর দিকে আহ্বান করে, নিজে সৎ কাজ করে এবং বলে, আমি একজন মুসলমান?

আল্লাহর দিকে আহ্বান করার বিভিন্ন স্তর রয়েছে। বিভিন্ন পর্যায় রয়েছে, বিভিন্ন দিক রয়েছে। অবিশ্বাসীদের আল্লাহর দিকে আহ্বান করা এটাও দাওয়াত। বিশ্বাসীদের আহ্বান করা সেটাও দাওয়াত। যারা ঈমানের উপর রয়েছে, তাদের ঈমানের প্রবৃদ্ধি ঘটানো এটাও দাওয়াত।

Facebooktwitterpinterestmailby feather

যিকির

হযরত বলেন, হরদুই হযরত মাওলানা আবরারুল হক রহমাতুল্লাহি আলাইহি বলতেন, চলতে ফিরতে লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ পড়বে। হাফেজ্জী হুযুর রহমাতুল্লাহি আলাইহি বলতেন, চলতে ফিরতে দরূদ শরীফ পড়বে। কোনো অসুবিধা নেই। যার মনে চায় দরূদ শরীফ পড়বে। যার মনে চায় লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ পড়বে। আল্লাহপাকের নাম জবানে থাকা। কাজে চলছে হাতে, আর জবান থাকবে যিকিরে।

Facebooktwitterpinterestmailby feather

দ্বীনি মাহফিল

হযরত বলেন, দ্বীনি মাহফিল সম্পর্কে হাফেজ্জী হুযুর রহমাতুল্লাহি আলাইহি বলতেন, আল্লাহর দিকে চেয়ে আল্লাহর বান্দাদের সামনে সাদাসিধা কিছু কথা বলেন। তারপর দু‘আ করে দেন। আলোচনা ভুল ত্রুটি হয়েছে, এজন্য আল্লাহ নিজেই দু‘আ শিখিয়েছেন :

رَبَّنَاتَقَبَّلْ مِنَّا إِنَّكَ أَنْتَ السَّمِيْعُ الْعَلِيْمُ

হে আমাদের প্রতিপালক, আমাদের কাছ থেকে কবুল করুন। আমরা যে কাজ করলাম সেটাকে গ্রহণ করুন।

رَبَّنَالَا تُؤَاخِذْنَا إِنْ نَّسِينَا أَوْ أَخْطَأْنَا

হে আমাদের প্রতিপালক, যদি ভুলে যাই, যদি ভুল হয়ে যায়, আমাদেরকে পাকড়াও করবেন না।

رَّبَّنَاإِنَّنَا سَمِعْنَا مُنَادِيًا يُّنَادِيْ لِلْإِيْمَانِ أَنْ اٰمِنُوْا بِرَبِّكُمْ فَآمَنَّا

হে আমাদের প্রতিপালক, আমরা একজন আহ্বানকারীকে বলতে শুনেছি তিনি আমাদের আহ্বান করে বলেছেন, তোমাদের প্রতিপালকের উপর ঈমান আন। তাই আমরা ঈমান এনেছি।

কোন সাইন্স (ঝপরবহপব), কোন জ্ঞান (কহড়ষিবফমব), কোন ফিলোসফি (চযরষড়ংড়ঢ়যু)-এর উপর ভিত্তি করে না। মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কথার উপর আমরা বিশ^াস করি। তারপর আছে,

رَبَّنَافَاغْفِرْ لَنَا ذُنُوْبَنَا وَكَفِّرْ عَنَّا سَيِّئَاتِنَا وَتَوَفَّنَا مَعَ الْأَبْرَارِ

আল্লাহ তা‘আলাই আমাদের মাফ করে দেন। আমাদের পূর্ববর্তী গোনাহগুলোকে ঢেকে দেন। নেককারদের সঙ্গে আমাদের মৃত্যু দেন।

Facebooktwitterpinterestmailby feather