All posts by tousif

Recognizing the blessings of Allah

An excerpt from Monday Mehfil of Uttara. Professor Hamidur Rahman sir discusses Quranic verses about the blessings of Allah Subhanahu wa ta’ala. Towards the end, Maolana Jalal saheb discusses the importance of an Alim or a Faqih; whether or not ‘internet’ can be a substitute of an Alim or a Faqih. Very important discussion for modern Muslims who think internet is a good enough source for learning deen.

Facebooktwitterpinterestmailby feather

ডান হাতে খাওয়া

হযরত বলেন, ডান হাতে খানা খেলেও পেট ভরবে, বাম হাতে খেলেও। কিন্তু সুন্নাত হচ্ছে ডান হাতে খানা খাওয়া। কোনো বৈজ্ঞ্যানিক ব্যাখ্যার প্রয়োজন নেই। আমাদেরকে এটাই অনুসরণ করতে হবে। এক সাহাবী বাম হাতে খাচ্ছিলেন। হযরত উমর(রাঃ) তাকে ডান হাতে খাওয়ার জন্য সতর্ক করলেন। একদিন, দুদিন, তিন দিনের দিন চাবুক দিয়ে মারলেন। তারপর সেই সাহাবী তার হাত তুলে দেখালেন এবং বললেন ‘মুতার যুদ্ধে আমার ডান হাত শহীদ হয়ে গেছে।’ এটা দেখে উমর(রাঃ) কেঁদে কেঁদে তার কাছে মাফ চাইলেন। আর বায়তুল মাল থেকে ভাতা দিয়ে একজন খাদেম নিযুক্ত করে দিলেন, যে তাকে আ্মৃ্ত্যু ডান হাতে খানা খাওয়াবে। তারপরেও বাম হাতে খানা খাওয়ার অনুমতি দেননি।

– হযরতের বাণী সংকলন ‘আত্মশুদ্ধির পাথেয়’ হতে সংগৃহীত

Facebooktwitterpinterestmailby feather

‘দ্বীন’ শব্দের অর্থ

হযরত বলেন, দ্বীন শব্দের আনেক মানে। timthumbএটার এক অর্থ ধর্ম।

(৩ঃ১৯)  ان الدین عند اللہ السلام

আল্লাহ তা’আলা বলেন, ‘নিশ্চয় ইসলামই আমার কাছে একমাত্র দ্বীন’।

আবার আছে,

(৫ঃ৩)  الْيَوْمَ أَكْمَلْتُ لَكُمْ دِينَكُمْ

‘আজকের এই দিনে আমি তোমার দ্বীনকে পরিপূর্ণ করে দিলাম।’ এখানে দ্বীন মানে ধর্ম। আমরা পড়ি مَالِكِ يَوْمِ الدِّينِ । এখানে  يَوْمِ الدِّينِ  মানে ‘প্রতিফলের দিন’।   যেদিন প্রতিফল দেয়া হবে। শব্দ একই।   অর্থ ভিন্ন। দ্বীনের আলোচনা মানে আসলে ধর্মের আলোচনা। দ্বীনের আলোচনা মানে প্রতিফল দিবসের আলোচনা। আর পুরো কুরআন মাজীদে আল্লাহ তা’আলা কেবল ঐ আলোচনাই করেছেন।

– হযরতের বাণী সংকলন ‘আত্মশুদ্ধির পাথেয়’ হতে সংগৃহীত

Facebooktwitterpinterestmailby feather

ইসালে সওয়াব

হযরত বলেন, হযরত থানভী (রাঃ) বলতেন, ‘তোমার যদি পিতামাতার জন্য ইসালে সওয়াব করতে মনে চায় বা দান করতে ইচ্ছে করে, তবে পাচঁ হাজার টাকা নিয়ে রাতের অন্ধকারে বের হয়ে গরিব দুঃখিদের মাঝে বিলিয়ে দাও। তারপর মনে মনে বল- আল্লাহ! এর সওয়াব আমার আব্বা আম্মার কবরে পৌঁছে দিন। এটা সাথে সাথে পৌঁছে যাবে। দু’আর জন্য হাত উঠানো বা জায়নামাজে বসা জরুরি নয়। আল্লাহ পাকের কাছে সরাসরি বলাই দু’আ**।’

– হযরতের বাণী সংকলন ‘আত্মশুদ্ধির পাথেয়’ হতে সংগৃহীত

** মৌলিকভাবে হাত উঠানো জরুরি না হলেও দু’আর সুন্নাত ও আদবসমূহের মধ্যে হাত উঠানোর কথাও এসেছে। দু’আর সুন্নাত ও আদবসমূহ বিস্তারিত  জানতে নির্ভরযোগ্য উলামায়ে কেরামের পরামর্শ নিন।

 

Facebooktwitterpinterestmailby feather

The Pen – A Blessing from The Creator

As you already know that I am not an Aleem. I am just a B.Sc.Engineering graduate. I graduated in 1961 from the famous Bangladesh University of Engineering and Technology (BUET) of Dhaka. Then I have worked for two years in a power station. I also had a chance to do a course in England for seven months while serving in English Electric Company. I learnt about transformers, switch gears, diesel engines and alternators etc in different electrical equipment manufacturing factory in different cities of England like Stafford, Liverpool etc. I came back and worked in English Electrical Company for the next six years. After eight years of service in practical life, I joined in BUET as a teacher. I worked there as a teacher for 26 years. I joined as an Assistant Professor and after 26 years, I retired as an Assistant Professor. I had no promotion. What is the fault? Because Ididn’t go for the M.Sc. Engineering or Ph.D. degree. Allah Subhanahuwata’ala gave me a chance to be a servant of a Sheikh of Bangladesh. His name was Muhammadullah. He is popularly known as Hafezzi Huzur. 
Facebooktwitterpinterestmailby feather